বাংলাদেশ সরকারী কর্ম কমিশন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩০ মে ২০১৬

নন-ক্যাডার পরীক্ষা

(১)    নন-ক্যাডার পরীক্ষা পদ্ধতি :

The Bangladesh Public Service Commission (Consultation) Regulations, 1979 এর আলোকে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়/বিভাগের চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে বিসিএস ক্যাডার বহির্ভূত ৯ম ও ১০ম গ্রেডের (১ম ও ২য় শ্রেণির) পদে উপয্র্ক্তু কর্মকর্তা নির্বাচনের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট নিয়োগবিধি অনুযায়ী পরীক্ষা পরিচালনা করা হয়। কর্ম কমিশন সচিবালয়ের ১৩ অক্টোবর ২০১৫ তারিখের ৮০.৪০৬.০০৬০১.০৪. ০০৯.২০১৩.৬৪৬(২৯) নং অফিস আদেশ অনুযায়ী ক্যাডার বহির্ভূত পদসমূহে নিয়োগদানের জন্য প্রার্থী সংখ্যা এক হাজারের কম হলে দুই স্তরবিশিষ্ট (লিখিত ও মৌখিক) পরীক্ষা গ্রহণ করা হয় এবং প্রার্থী সংখ্যা এক হাজার বা তদূর্ধ্ব হলে তিন স্তরবিশিষ্ট (প্রিলিমিনারি, লিখিত ও মৌখিক) পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। প্রার্থী সংখ্যা নির্বিশেষে ৯ম গ্রেডের পদের জন্য ২০০ নম্বরের বর্ণনামূলক লিখিত পরীক্ষা গ্রহণ করা হয় ও উত্তীর্ণ প্রার্থীদের ১০০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। ১০ম গ্রেডের পদের জন্য ২০০ নম্বরের বর্ণনামূলক লিখিত পরীক্ষা ও ৫০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। ৯ম গ্রেডের উচ্চতর বেতন স্কেলের পদের ক্ষেত্রে শুধু ১০০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। প্রতিবছর ক্যাডার বহির্ভূত পদের জন্য বিপুল সংখ্যক প্রার্থীর পরীক্ষা গ্রহণ করা হয় ও উপযুক্ত প্রার্থী বাছাই করে নিয়োগের সুপারিশ প্রদান করা হয়।

(২)    নন-ক্যাডার পরীক্ষার কার্যক্রম :

(১)    বর্তমানে নন-ক্যাডার সকল পদের জন্য online-এ আবেদনপত্র গ্রহণ করা হচ্ছে। অনলাইন রেজিস্ট্রেশনকৃত প্রার্থীদের তথ্য সফটওয়্যার-এর মাধ্যমে ডাটাবেইজ-এ রূপান্তর করে প্রাথমিকভাবে রেজিস্ট্রেশন নম্বর সংবলিত তালিকা প্রস্তুত করা হয়;
(২)    প্রাথমিক তালিকা থেকে যোগ্য এবং অযোগ্য তালিকা চূড়ান্তকরণের পর প্রিলিমিনারি/লিখিত পরীক্ষার জন্য বিভিন্ন কেন্দ্রভিত্তিক ছবিসহ হাজিরা তালিকা প্রস্তুত করা হয়;
(৩)    প্রিলিমিনারি পরীক্ষার OMR উত্তরপত্র OMR স্ক্যানিং মেশিন-এর মাধ্যমে Scan করে প্রাপ্ত Data সফটওয়্যারের মাধ্যমে মূল্যায়ন করে স্কোর ফ্রিকোয়েন্সি তৈরি করা হয় এবং কমিশনের নির্ধারিত Cut off নম্বর অনুযায়ী প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফলাফল তৈরি করা হয়;
(৪)    নন-ক্যাডার লিখিত পরীক্ষার জন্য কেন্দ্রভিত্তিক রেজিস্ট্রেশন নম্বরের বিভাজন/রেঞ্জ নম্বর সংবলিত পরীক্ষার আসন বিন্যাস এবং সময়সূচি প্রস্তুত করা হয়;
(৫)    লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রস্তুতের জন্য রেজিস্ট্রেশন সংবলিত লিথোকোডের E-Type ১ম  অংশ এবং নম্বর সংবলিত লিথোকোডের H-Type ২য় অংশ (OMR) স্ক্যানিং মেশিন-এর মাধ্যমে স্ক্যান করা হয়। স্ক্যানকৃত data পরবর্তীতে সফটওয়্যার-এর মাধ্যমে ডাটাবেইজ-এ রূপান্তর করে নন-ক্যাডার পরীক্ষার জন্য নির্ধারিত পদ্ধতি অনুযায়ী লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রস্তুত করা হয়;
(৬)    লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষার জন্য পদ অনুযায়ী তারিখ ভিত্তিক সময়সূচি এবং বোর্ড ভিত্তিক প্রার্থী সংখ্যানুপাতে মৌখিক পরীক্ষার প্রেসি প্রস্তুত করা হয়;
(৭)    মৌখিক পরীক্ষার নম্বর কম্পিউটারাইজড পদ্ধতিতে ডাটাবেইজ-এ এন্ট্রি করা হয়;
(৮)     মৌখিক এবং লিখিত পরীক্ষার নম্বর যোগ করে টেবুলেশন এবং মেধা তালিকা প্রস্তুত করা হয় এবং পাশাপাশি পদ সংখ্যানুযায়ী কোটা ডিস্ট্রিবিউশন ফরমেট প্রস্তুত করা হয়;
(৯)    সরকারি পদ বণ্টন নীতিমালা অনুসরনে চুড়ান্ত ফলাফল প্রস্তুত করা হয় এবং শূণ্য পদে নিয়োগের জন্য যোগ্য প্রার্থীদের নাম সুপারিশ করা হয়।

(৩)    নন-ক্যাডার বাছাই (Preliminary) পরীক্ষার সিলেবাস ও নম্বর বণ্টন :

২২-০৬-২০১১ তারিখে বাংলাদেশ সরকারী কর্ম কমিশনের ২০১১ সালের সপ্তম বিশেষ সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ০৬ জুলাই, ২০১১ তারিখের অফিস আদেশে নন-ক্যাডার বিভিন্ন পদের বাছাই পরীক্ষার (MCQ Type preliminary Examination) ৪টি বিষয়ের নম্বর বণ্টন নিম্নরূপে আনুষ্ঠানিকভাবে বিন্যস্ত করা হয়েছে :

ক্রমিক নং বিষয় নম্বর
১. বাংলা ২৫
২. ইংরেজি ২৫
৩.

সাধারণ জ্ঞানঃ

ক) বাংলাদেশ বিষয়াবলি

খ) আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি

২৫
৪. প্রাথমিক গণিত ও দৈনন্দিন বিজ্ঞান ২৫
  মোট ১০০

 


Share with :
Facebook Facebook